ডুমারিয়ার দেশে

ডুমারিয়ার দেশে

ডুমারিয়ার দেশে 1024 683 সীমানা ছাড়িয়ে

ডুমারিয়ার দেশে
*****************
সকালে দরজার সামনে মৌটুসির পালক
খবর এনেছে ডুমারিয়ার।
চৈত্র-দাবানলে দগ্ধ ডুমারিয়ার বন
এবছর পলাশে আবার অলঙ্কৃতা।
চলো, আজ আমরা
হাত ধরে একছুটে চলে যাই পাহাড়চূড়ায়!

একছুটে পেরিয়ে যাই শিমুলের বাগান আর মহুয়ার বন,
আজ সূর্যাস্তের আগে।
হাঁপিয়ে গেলে? আছে তো শালপাতার বিছানা।
বলো,
কতদিন শোন নি চৈতালি হাওয়ার গান!
পাহাড়ি ঝর্ণার জলে স্নানের পর,
আমার চুম্বনে
যদি কাঁপতে থাকে তোমার ঠোঁট?
ভেসে যেও জ্যোৎস্নায়
যেভাবে, ঝর্ণা নদী হয়ে যায়।
কালকের দাবানলে আবার পুড়ে যাওয়ার আগে
চলো, কুড়িয়ে আনি আজই সব ঝরা পলাশ।
মানুষ সব বাঁধ দিয়ে দেওয়ার আগেই
চলো, আমরা নদী হয়ে বয়ে যাই আরও কিছু ঘাটে।
যারা নাম জানেনা আমাদের।
শুধু জানে, তোমারই বুকের সুবাসে নদীর নাম সুগন্ধা।
কাল হাত ছাড়ার আগে
চলো, একছুটে আজই যাই
পৃথিবী তো কাল ধ্বংস হয়ে যাবে!
© দেবাঞ্জন বাগচী।

Leave a Reply

Solve : *
15 + 10 =