আমার ওয়েবসাইট অবধি এসে দেখা করার জন্য ধন্যবাদ, আমি দেবাঞ্জন। বেড়ে ওঠা মফস্বলে, কর্মসূত্রে আপাতত কলকাতায়। পড়াশোনা কমার্স আর ম্যানেজমেন্ট নিয়ে। এই দুটি সাবজেক্টে তিনটি স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করে, আপাতত  চাকুরিজীবী।

নেশা অনেক। অল্প করে বললেও ধরুন- বই পড়ি, ছবি তুলি, সিনেমা দেখি, একটু আধটু লিখি, বেড়াই, সাইকেল চালাতে চালাতে আকাশ পাতাল ভাবতে ভালবাসি, আর খুব আড্ডাবাজও।

নিজের ফেসবুক পেজের মাধ্যমে নিজের ভালোলাগা যেমনভাবে সবার সাথে ভাগ করে নিতে চাই তেমনভাবে ঠিক হচ্ছিল না। মফস্বল আর মহানগরীর দোলাচলে কেটে যাওয়া দীর্ঘ এই সময়ে জীবন.. স্টেশনের বেঞ্চে বসে খাওয়া অমৃত সমান ঘুঘনি থেকে পাঁঁচতারা হোটেলের বেকড বিনস সবই গ্রহণ করেছে! নেতারহাটে আদিবাসী যুুুবকের করুন সুুর আমি খুঁজে পেয়েছি সুুদূর কায়রোর বাজারের বেজে ওঠা আহমেদের “রাবাব”-এর সুরে।

এই ওয়েবসাইটে আমি ধরার চেষ্টা করেছি বদলে যাওয়া সময়কে, বদলে যাওয়া নিজেকে ও আমার প্রকাশিত আর অপ্রকাশিত লেখা, দেশ ভ্রমনের ছবি, বিভিন্ন অভিজ্ঞতা, চিন্তা ও মতামত, প্রকাশিত গল্প ও প্রবন্ধ, আর সিনেমা বা খাবারের রিভিউয়ের মাধ্যমে। ভাল লাগলে মতামত জানাতে পারেন নীচের ফর্মে। অন্য মাধ্যমেও যোগাযোগের হদিশ দেওয়া আছে।

আর হ্যাঁ, আমি ভাল কফি বানাই। এবার আপনার আর আমার আড্ডা জমার মাঝে ব্যবধান শুধু এক পা দূরে।

Leave a Reply

Solve : *
23 + 9 =